ঢাকা , শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
রামকান্তুপুর ইউয়িনের মোহনশাহ’র বটতলার গোল চত্বর এর উদ্বোধন রাজবাড়ীতে মাদকদ্রব্যর অপব্যবহার ও পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস ও আলোচনা সভা রাজবাড়ীতে ডিবি পুলিশের অভিযানে মাদক ব্যবসায়ী মোজাম্মেল আটক রাজবাড়ী শহর রক্ষা প্রকল্প (ফেইজ-২) বাস্তবায়ন বিষয়ক সাধারণ সমন্বয় সভা সন্ধ্যার মধ্যে বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান করতে হবে-প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী রামকান্তপুর ইউনিয়ন ও পৌর নবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সোহেল রানা। ঈদুল ফিতর’ উপলক্ষে চন্দনী ইউনিয়বাসীর সুস্বাস্থ্য, সুখ-সমৃদ্ধি ও অনাবিল আনন্দ কামনা করে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন-শাহিনুর পৌরবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুবলীগ নেতা মীর সজল জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকল সম্প্রদায়ের মানুষকেঈদের শুভেচ্ছা কাজী ইরাদত আলীর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে ছিন্নমূল মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ

ভাইকে বাঁচাতে বোনের আকুতি!

রাজবাড়ী টুডে: “আমার ছোট ভাই শাহিন খুব অসুস্থ। তার হার্ট অ্যাটাক হয়েছে। তার অবস্থা এখন খুবই খারাপ। ডাক্তার বলেছে যে তার হার্টে দ্রুত রিং পড়াতে হবে। কিন্তু এতে অনেক টাকার প্রয়োজন। সম্পূর্ণ টাকা আমাদের পক্ষে যোগার করা খুবই কষ্টসাধ্য। আমার ভাইয়ের দুইটি ছেলে আছে, যারা অনেক ছোট। আমার ভাইয়ের বড় ছেলে দশম শ্রেণিতে পড়ে, আরেকজন ছেলের বয়স মাত্র দুই বছর। তাই সবার কাছে আবেদন করি আমার ভাইকে যদি সাহায্য করেন, তাহলে হয়তো আমার ভাই আপনাদের সহযোগিতায় দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবে।”

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের হৃদয়ছোঁয়া স্ট্যাটাসে আদরের ছোটভাইকে বাঁচাতে এভাবেই আকুতি জানিয়েছেন রাজবাড়ী জেলা শহরের ৩নং বেড়াডাঙ্গা এলাকার বাসিন্দা আয়েশা খানম বেবী (৫০)।

বুধবার (২৬ এপ্রিল) বেবীর ক্ষুদ্র হস্তশিল্প প্রতিষ্ঠানের (গৃহকোণ) নামের ফেসবুক আইডি থেকে পোস্ট করা স্ট্যাটাসটি এরইমধ্যে অসংখ্য মানুষের শেয়ারে ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে গেছে। ফলে সাহায্যও উঠেছে প্রায় ৪৪ হাজার টাকা। কিন্তু বেবীর ছোটভাই শাহিন খানকে (৪৫) বাঁচাতে টাকার প্রয়োজন প্রায় আড়াই লাখ।

কান্নাজড়িত কন্ঠে আয়েশা খানম বেবী বলেন, শাহিন রাজধানীর উত্তরায় একটি বাসায় কেয়ারটেকার হিসেবে কাজ করে। গত তিন মাস ধরে সে মাঝে মাঝে বুকে ব্যাথা অনুভব করতে থাকে। গত ২৪এপ্রিল সে বুকে প্রচন্ড ব্যাথা অনুভব করে গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে (সাবেক পিজি হাসপাতাল) ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে ডাক্তাররা তাকে এনজিওগ্রামসহ বেশ কয়েকটি চেকআপ করানোরা পরামর্শ দেন। চেকআপে শাহিনের হার্টে দুইটি ব্লক ধরা পড়ে। এরমধ্যে একটি ব্লক সম্পূর্ণ এবং একটি আংশিক। ডাক্তার বলেছেন এ অবস্থায় তার হার্টে দ্রুত রিং পড়াতে না পারলে তাকে বাঁচানো সম্ভব হবে না। কিন্তু রিং পড়াতে প্রায় আড়াই লাখ টাকার প্রয়োজন। বর্তমানে শাহিন পিজি হাসপাতালের ডি-ব্লকের ৪র্থ তলায় স্টেপ ডাউন ইউনিটের (এসডিইউ) ১০ নম্বর বেডে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের পরিবারের এতো টাকা না থাকায় আমি নিরুপায় হয়ে সাহায্যের আবেদন করে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেই। স্ট্যাটাসটি দেখে অনেকেই সাহায্য করেছেন। এই কয়েকদিনে প্রায় ৪৪ হাজার টাকা সাহায্য উঠেছে। বাকি টাকা যোগাড় না হওয়াতে আমরা শাহিনের চিকিৎসা করাতে পারছি না। তাই সমাজের বিত্তবানদের কাছে আমার অনুরোধ, আমার ছোটভাইটিকে বাঁচাতে আপনারা সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন।

শাহিন খানকে বাঁচাতে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানাঃ- উম্মে শেফা ইসলাম, হিসাব নং- ০১২৬১০৫০০০০১৭১১২৯, ডাচ বাংলা ব্যাংক লিঃ, এলিফ্যান্ট রোড শাখা, ঢাকা। বিকাশ নম্বর- ০১৭৭০-৪৪২৯৫৫ (ব্যক্তিগত)। আয়েশা খানম বেবীর ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর- ০১৭১৬-৭৪৬৯৬৩।

Tag :

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

লেখক তথ্য সম্পর্কে

Meraj Gazi

জনপ্রিয় পোস্ট

রামকান্তুপুর ইউয়িনের মোহনশাহ’র বটতলার গোল চত্বর এর উদ্বোধন

ভাইকে বাঁচাতে বোনের আকুতি!

আপডেটের সময় : ১১:১৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৭

রাজবাড়ী টুডে: “আমার ছোট ভাই শাহিন খুব অসুস্থ। তার হার্ট অ্যাটাক হয়েছে। তার অবস্থা এখন খুবই খারাপ। ডাক্তার বলেছে যে তার হার্টে দ্রুত রিং পড়াতে হবে। কিন্তু এতে অনেক টাকার প্রয়োজন। সম্পূর্ণ টাকা আমাদের পক্ষে যোগার করা খুবই কষ্টসাধ্য। আমার ভাইয়ের দুইটি ছেলে আছে, যারা অনেক ছোট। আমার ভাইয়ের বড় ছেলে দশম শ্রেণিতে পড়ে, আরেকজন ছেলের বয়স মাত্র দুই বছর। তাই সবার কাছে আবেদন করি আমার ভাইকে যদি সাহায্য করেন, তাহলে হয়তো আমার ভাই আপনাদের সহযোগিতায় দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবে।”

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের হৃদয়ছোঁয়া স্ট্যাটাসে আদরের ছোটভাইকে বাঁচাতে এভাবেই আকুতি জানিয়েছেন রাজবাড়ী জেলা শহরের ৩নং বেড়াডাঙ্গা এলাকার বাসিন্দা আয়েশা খানম বেবী (৫০)।

বুধবার (২৬ এপ্রিল) বেবীর ক্ষুদ্র হস্তশিল্প প্রতিষ্ঠানের (গৃহকোণ) নামের ফেসবুক আইডি থেকে পোস্ট করা স্ট্যাটাসটি এরইমধ্যে অসংখ্য মানুষের শেয়ারে ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে গেছে। ফলে সাহায্যও উঠেছে প্রায় ৪৪ হাজার টাকা। কিন্তু বেবীর ছোটভাই শাহিন খানকে (৪৫) বাঁচাতে টাকার প্রয়োজন প্রায় আড়াই লাখ।

কান্নাজড়িত কন্ঠে আয়েশা খানম বেবী বলেন, শাহিন রাজধানীর উত্তরায় একটি বাসায় কেয়ারটেকার হিসেবে কাজ করে। গত তিন মাস ধরে সে মাঝে মাঝে বুকে ব্যাথা অনুভব করতে থাকে। গত ২৪এপ্রিল সে বুকে প্রচন্ড ব্যাথা অনুভব করে গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে (সাবেক পিজি হাসপাতাল) ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে ডাক্তাররা তাকে এনজিওগ্রামসহ বেশ কয়েকটি চেকআপ করানোরা পরামর্শ দেন। চেকআপে শাহিনের হার্টে দুইটি ব্লক ধরা পড়ে। এরমধ্যে একটি ব্লক সম্পূর্ণ এবং একটি আংশিক। ডাক্তার বলেছেন এ অবস্থায় তার হার্টে দ্রুত রিং পড়াতে না পারলে তাকে বাঁচানো সম্ভব হবে না। কিন্তু রিং পড়াতে প্রায় আড়াই লাখ টাকার প্রয়োজন। বর্তমানে শাহিন পিজি হাসপাতালের ডি-ব্লকের ৪র্থ তলায় স্টেপ ডাউন ইউনিটের (এসডিইউ) ১০ নম্বর বেডে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের পরিবারের এতো টাকা না থাকায় আমি নিরুপায় হয়ে সাহায্যের আবেদন করে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেই। স্ট্যাটাসটি দেখে অনেকেই সাহায্য করেছেন। এই কয়েকদিনে প্রায় ৪৪ হাজার টাকা সাহায্য উঠেছে। বাকি টাকা যোগাড় না হওয়াতে আমরা শাহিনের চিকিৎসা করাতে পারছি না। তাই সমাজের বিত্তবানদের কাছে আমার অনুরোধ, আমার ছোটভাইটিকে বাঁচাতে আপনারা সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন।

শাহিন খানকে বাঁচাতে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানাঃ- উম্মে শেফা ইসলাম, হিসাব নং- ০১২৬১০৫০০০০১৭১১২৯, ডাচ বাংলা ব্যাংক লিঃ, এলিফ্যান্ট রোড শাখা, ঢাকা। বিকাশ নম্বর- ০১৭৭০-৪৪২৯৫৫ (ব্যক্তিগত)। আয়েশা খানম বেবীর ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর- ০১৭১৬-৭৪৬৯৬৩।