ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
রামকান্তুপুর ইউয়িনের মোহনশাহ’র বটতলার গোল চত্বর এর উদ্বোধন রাজবাড়ীতে মাদকদ্রব্যর অপব্যবহার ও পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস ও আলোচনা সভা রাজবাড়ীতে ডিবি পুলিশের অভিযানে মাদক ব্যবসায়ী মোজাম্মেল আটক রাজবাড়ী শহর রক্ষা প্রকল্প (ফেইজ-২) বাস্তবায়ন বিষয়ক সাধারণ সমন্বয় সভা সন্ধ্যার মধ্যে বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান করতে হবে-প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী রামকান্তপুর ইউনিয়ন ও পৌর নবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সোহেল রানা। ঈদুল ফিতর’ উপলক্ষে চন্দনী ইউনিয়বাসীর সুস্বাস্থ্য, সুখ-সমৃদ্ধি ও অনাবিল আনন্দ কামনা করে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন-শাহিনুর পৌরবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুবলীগ নেতা মীর সজল জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকল সম্প্রদায়ের মানুষকেঈদের শুভেচ্ছা কাজী ইরাদত আলীর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে ছিন্নমূল মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ

ব্যবসায়ি অমিত সাহার কান্না দেখল জামালপুরবাসী!

দেবাশীষ বিশ্বাস, রাজবাড়ী টুডে: রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের জামালপুর বাজার কালী মন্দির প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত নিজ বাড়ীতে  হামলার বর্ণনা দিতে গিয়ে এক পর্যায় কেঁদে ফেলেন অমিত কুমার সাহা।

২৭ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) বিকালে জামালপুর বাজার বণিক সমিতি  আয়োজিত বিশিষ্ট ব্যবসায়ী অমির সাহার উপর অপ্রিতিকর ঘটনার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সভায় অমিত কুমার সাহা জানান, ‘আমার সব থাকা সত্বেও আমি আমারপরিবারকে রক্ষা করেত পারি নাই।’

তিনি বলেন, ‘১৫ এপ্রিল (শনিবার) আমাদের গোডাউনে ৮ বস্তা মসুরী দিয়ে ১২ বস্তার দাম নেয় জামালপুর ইউনিয়নের স্থানীয় ব্যবসায়ী হাপিজুল বিশ্বাস। প্রতিদিনে ন্যায় আমর দাদা বিদুল কুমার সাহা বিভিন্নপ্রতিষ্ঠানে ব্যাবসা সংক্রান্ত কাজ শেষ করে ঐদিন সন্ধ্যায় সিসি টিভির ফুটেজে বিষয়টি দেখতে পায়। সেদিন রাতে হাপিজুলকে ডেকে বিষয়টির ব্যাপারে জানতে চাইলেতিনি বলেন আমি ১২ বস্তা মসুরী গোডাউনে রেখেছি। পরে তার সাথে আসা সঙ্গীরা সিসি টিভির বিষয়টি হাপিজুলকে বোঝালে এক পর্যায় বিষয়টি মেনে নেয়হাপিজুল বিশ্বাস। জামালপুর বাজার বণিক সমিতির সাধারন সম্পাদক মজিবর রহমানবিশ্বাস বলেন তারা ২৩ এপ্রিল (রবিবার) সমাধানের দিন ধার্য করে দুই পক্ষকেবিষয়টি নিয়ে কোন প্রকার ঝামেলায় না জারানোর অনুরোধ করেন ব্যবসায়ীনেত্রীবৃন্দরা। গত ২২ এপ্রিল (শনিবার) সকাল ৯.৩০ মিনিটের দিকে হাপিজুলবিশ্বাস, নেওয়াজ বিশ্বাস, নাছিরুল বিশ্বাস, জাহিদুল বিশ্বাস, জিয়া বিশ্বাস,জাকির বিশ্বাস সহ ১৫-২০ জন সন্ত্রাসীরা জামালপুর বাজারের অমিত কুমার সাহারবাড়ীর গেটের কলিং বেল বাজালে মেয়ে গেট খুলতেই বাড়ীর ভিতর ঢুকে হামলা চালায়সন্ত্রাসীরা। বিদুল কুমার সাহা বাদী হয়ে বালিয়াকান্দি থানায় মামলা দায়ের করলেপুলিশ আসামীদের গ্রেফতার করলে কোর্টে প্রেরন করলে আদালত থেকে জামিনে বেরিয়ে আসে। জামিনে এসেই বিভিন্ন মহল মাধ্যম হুমকি প্রদান করে ব্যবসায়ী অমিতসাহার পরিবারের উপর। অমিত সাহা জীবন রক্ষায় আবার আদালতের সরনাপন্ন হয়।

জামালপুর বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মীর মনিরুজ্জামান বাবুর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন স্থানীয় ব্যবসায়ী সাইফুল বিন খালেক,এমদাদুল হক শামীম, জঙ্গল ইউনিয়নের সভাপতি নৃপেন্দ্র নাথ বিশ্বাস, জামালপুরইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইউনুছ আলী সরদার, জামালপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যানএ কে এম ফরিদ হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সামছুল আলমসুফি, সভাপতি আব্দুল হান্নান মোল্যা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ওবালিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম আজাদ।উপজেলা চেয়ারম্যান বলেন, এই সব নামধারী আওয়ামী লীগের জন্য আমাদের বদনাম হচ্ছে। এরা নিজেদের অনেক বড় নেতা মনে করে। তিনি আরো বলেন প্রতিবাদ সভা হয় শক্তিশালী
নেতাদের বিরুদ্ধে। এই প্রতিবাদ সভা একটি ভুল সিধান্ত। এদের শাস্তি পেতে হবে এবংদৃষ্টান্ত স্থাপন করে দেখাতে। তিনি স্থানীয় ৫ জন নেতাকে বিষয়টি নিয়ে সমাধানেরলক্ষ্যে কাজ করতে বলেন। নাম প্রকাশ না করার স্বর্তে জামালপুর বাজারের এক ব্যবসায়ী জানান, হামালাকারীদেরইন্দনদাতা খুঁতে বের করতে না পারলে এমন ঘটনার মুখোমুখি অনেকেরই হতে হবে।

Tag :

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

লেখক তথ্য সম্পর্কে

Meraj Gazi

জনপ্রিয় পোস্ট

রামকান্তুপুর ইউয়িনের মোহনশাহ’র বটতলার গোল চত্বর এর উদ্বোধন

ব্যবসায়ি অমিত সাহার কান্না দেখল জামালপুরবাসী!

আপডেটের সময় : ১১:৪১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৭

দেবাশীষ বিশ্বাস, রাজবাড়ী টুডে: রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের জামালপুর বাজার কালী মন্দির প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত নিজ বাড়ীতে  হামলার বর্ণনা দিতে গিয়ে এক পর্যায় কেঁদে ফেলেন অমিত কুমার সাহা।

২৭ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) বিকালে জামালপুর বাজার বণিক সমিতি  আয়োজিত বিশিষ্ট ব্যবসায়ী অমির সাহার উপর অপ্রিতিকর ঘটনার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সভায় অমিত কুমার সাহা জানান, ‘আমার সব থাকা সত্বেও আমি আমারপরিবারকে রক্ষা করেত পারি নাই।’

তিনি বলেন, ‘১৫ এপ্রিল (শনিবার) আমাদের গোডাউনে ৮ বস্তা মসুরী দিয়ে ১২ বস্তার দাম নেয় জামালপুর ইউনিয়নের স্থানীয় ব্যবসায়ী হাপিজুল বিশ্বাস। প্রতিদিনে ন্যায় আমর দাদা বিদুল কুমার সাহা বিভিন্নপ্রতিষ্ঠানে ব্যাবসা সংক্রান্ত কাজ শেষ করে ঐদিন সন্ধ্যায় সিসি টিভির ফুটেজে বিষয়টি দেখতে পায়। সেদিন রাতে হাপিজুলকে ডেকে বিষয়টির ব্যাপারে জানতে চাইলেতিনি বলেন আমি ১২ বস্তা মসুরী গোডাউনে রেখেছি। পরে তার সাথে আসা সঙ্গীরা সিসি টিভির বিষয়টি হাপিজুলকে বোঝালে এক পর্যায় বিষয়টি মেনে নেয়হাপিজুল বিশ্বাস। জামালপুর বাজার বণিক সমিতির সাধারন সম্পাদক মজিবর রহমানবিশ্বাস বলেন তারা ২৩ এপ্রিল (রবিবার) সমাধানের দিন ধার্য করে দুই পক্ষকেবিষয়টি নিয়ে কোন প্রকার ঝামেলায় না জারানোর অনুরোধ করেন ব্যবসায়ীনেত্রীবৃন্দরা। গত ২২ এপ্রিল (শনিবার) সকাল ৯.৩০ মিনিটের দিকে হাপিজুলবিশ্বাস, নেওয়াজ বিশ্বাস, নাছিরুল বিশ্বাস, জাহিদুল বিশ্বাস, জিয়া বিশ্বাস,জাকির বিশ্বাস সহ ১৫-২০ জন সন্ত্রাসীরা জামালপুর বাজারের অমিত কুমার সাহারবাড়ীর গেটের কলিং বেল বাজালে মেয়ে গেট খুলতেই বাড়ীর ভিতর ঢুকে হামলা চালায়সন্ত্রাসীরা। বিদুল কুমার সাহা বাদী হয়ে বালিয়াকান্দি থানায় মামলা দায়ের করলেপুলিশ আসামীদের গ্রেফতার করলে কোর্টে প্রেরন করলে আদালত থেকে জামিনে বেরিয়ে আসে। জামিনে এসেই বিভিন্ন মহল মাধ্যম হুমকি প্রদান করে ব্যবসায়ী অমিতসাহার পরিবারের উপর। অমিত সাহা জীবন রক্ষায় আবার আদালতের সরনাপন্ন হয়।

জামালপুর বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মীর মনিরুজ্জামান বাবুর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন স্থানীয় ব্যবসায়ী সাইফুল বিন খালেক,এমদাদুল হক শামীম, জঙ্গল ইউনিয়নের সভাপতি নৃপেন্দ্র নাথ বিশ্বাস, জামালপুরইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইউনুছ আলী সরদার, জামালপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যানএ কে এম ফরিদ হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সামছুল আলমসুফি, সভাপতি আব্দুল হান্নান মোল্যা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ওবালিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম আজাদ।উপজেলা চেয়ারম্যান বলেন, এই সব নামধারী আওয়ামী লীগের জন্য আমাদের বদনাম হচ্ছে। এরা নিজেদের অনেক বড় নেতা মনে করে। তিনি আরো বলেন প্রতিবাদ সভা হয় শক্তিশালী
নেতাদের বিরুদ্ধে। এই প্রতিবাদ সভা একটি ভুল সিধান্ত। এদের শাস্তি পেতে হবে এবংদৃষ্টান্ত স্থাপন করে দেখাতে। তিনি স্থানীয় ৫ জন নেতাকে বিষয়টি নিয়ে সমাধানেরলক্ষ্যে কাজ করতে বলেন। নাম প্রকাশ না করার স্বর্তে জামালপুর বাজারের এক ব্যবসায়ী জানান, হামালাকারীদেরইন্দনদাতা খুঁতে বের করতে না পারলে এমন ঘটনার মুখোমুখি অনেকেরই হতে হবে।