ঢাকা , শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
রামকান্তুপুর ইউয়িনের মোহনশাহ’র বটতলার গোল চত্বর এর উদ্বোধন রাজবাড়ীতে মাদকদ্রব্যর অপব্যবহার ও পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস ও আলোচনা সভা রাজবাড়ীতে ডিবি পুলিশের অভিযানে মাদক ব্যবসায়ী মোজাম্মেল আটক রাজবাড়ী শহর রক্ষা প্রকল্প (ফেইজ-২) বাস্তবায়ন বিষয়ক সাধারণ সমন্বয় সভা সন্ধ্যার মধ্যে বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান করতে হবে-প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী রামকান্তপুর ইউনিয়ন ও পৌর নবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সোহেল রানা। ঈদুল ফিতর’ উপলক্ষে চন্দনী ইউনিয়বাসীর সুস্বাস্থ্য, সুখ-সমৃদ্ধি ও অনাবিল আনন্দ কামনা করে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন-শাহিনুর পৌরবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুবলীগ নেতা মীর সজল জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকল সম্প্রদায়ের মানুষকেঈদের শুভেচ্ছা কাজী ইরাদত আলীর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে ছিন্নমূল মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ

গোয়ালন্দে খামারে ‘শত্রুতার’ আগুনে পুড়ে মরলো সহস্রাধিক মুরগি

  • রিপোর্টারের নাম
  • আপডেটের সময় : ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ অক্টোবর ২০১৬
  • ৩৬৮ ভিউয়ের সময়

মো: মাহ্ফুজুর রহমান, রাজবাড়ী টুডে ডট কম:

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের ছোট ভাকলা ইউনিয়নের পূর্ব বিলডাঙ্গা এলাকার ইয়াকুর বেপারী মুরগির খামারে অগ্নিকান্ডে ১২ শতাধিক সোনালী জাতের মুরগি পুড়ে মারা গেছে।

পূর্ব শত্রুতার জেরে সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে দুর্বৃত্তরা এ ঘটনা ঘটায় বলে খামার মালিকের দাবী।

ওই খামার মালিকের ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকা। সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে মঙ্গলবার গোয়ালন্দ ঘাট থানায় মামলা হয়েছে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে দেখা গেছে, ইয়াকুবের সোনালী মুরগির খামারে অগ্নিকান্ডে টিনের চালা সহ সবই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। পোড়া খামারের মধ্যে সারি সারি আগুনে ঝলসে যাওয়া সহস্রাধিক মরা সোনালী জাতের মুরগি পড়ে আছে।

এ সময় ইয়াকুবের স্ত্রী শাহেদা বেগম (৪৮) বলেন, এলাকায় আমাদের কোন শত্রু নাই। তবে আগের দিন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জমি-জমা নিয়ে একই এলাকায় বসবাস কারী দেবর সাইদের সাথে আমার ছেলেদের মারামারি হয়।

বিকালে আমার দেবর সাইদের পক্ষ নিয়ে তার ভাগিনা দৌলতদিয়ার সোহাগ বেপারী ৫/৬টি মোটর সাইকেল নিয়ে মহড়া দেয়। রাতের বেলায় আমার ফার্মে আগুন দেওয়া হয়। এটা সাইদের ইন্দনে তার ভাগিনা ঘটাতে পারে।

শাহেদা বেগমের ছেলে সোহেল ব্যাপারী জানান, আমরা সাইদ ও তার ভাগিনাকে সন্দেহ করে থানায় মামলা করেছি।

ঘটনাস্থল থেকে আছমা বেগম, রবিন সরদার, এমদাদুল শেখ, ফরহাদ শেক, সোহেল ব্যাপারী সহ একাধিক এলাকাবাসী জানান, ইয়াকুবের সোনালী মুরগির খামারে কেউ না কেউ অগ্নিপাত ঘটিয়েছ। তবে কারা আগুন দিয়েছে এটা পরিস্কার নয়। কারণ তাদের দুই পক্ষের গোলমালের সুযোগে অন্য কেউ আগুন দিতে পারে।

এ ব্যাপারে সাইদ ও তার পিতা আলীমদ্দিন বেপারী বলেন, আমাদের সাথে ইয়াকুবের জমি-জমা নিয়ে বিরোধ রয়েছে। তাই বলে তার ফার্মে আগুন দিয়ে এত বড় সর্বনাশ করা সম্ভব নয়।

এটা আশপাশ এলাকার কেউ চক্রান্ত করে আমাদের গোলমাল বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য এটা ঘাটাতে পারে।

Tag :

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

লেখক তথ্য সম্পর্কে

Meraj Gazi

জনপ্রিয় পোস্ট

রামকান্তুপুর ইউয়িনের মোহনশাহ’র বটতলার গোল চত্বর এর উদ্বোধন

গোয়ালন্দে খামারে ‘শত্রুতার’ আগুনে পুড়ে মরলো সহস্রাধিক মুরগি

আপডেটের সময় : ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ অক্টোবর ২০১৬

মো: মাহ্ফুজুর রহমান, রাজবাড়ী টুডে ডট কম:

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের ছোট ভাকলা ইউনিয়নের পূর্ব বিলডাঙ্গা এলাকার ইয়াকুর বেপারী মুরগির খামারে অগ্নিকান্ডে ১২ শতাধিক সোনালী জাতের মুরগি পুড়ে মারা গেছে।

পূর্ব শত্রুতার জেরে সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে দুর্বৃত্তরা এ ঘটনা ঘটায় বলে খামার মালিকের দাবী।

ওই খামার মালিকের ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকা। সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে মঙ্গলবার গোয়ালন্দ ঘাট থানায় মামলা হয়েছে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে দেখা গেছে, ইয়াকুবের সোনালী মুরগির খামারে অগ্নিকান্ডে টিনের চালা সহ সবই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। পোড়া খামারের মধ্যে সারি সারি আগুনে ঝলসে যাওয়া সহস্রাধিক মরা সোনালী জাতের মুরগি পড়ে আছে।

এ সময় ইয়াকুবের স্ত্রী শাহেদা বেগম (৪৮) বলেন, এলাকায় আমাদের কোন শত্রু নাই। তবে আগের দিন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জমি-জমা নিয়ে একই এলাকায় বসবাস কারী দেবর সাইদের সাথে আমার ছেলেদের মারামারি হয়।

বিকালে আমার দেবর সাইদের পক্ষ নিয়ে তার ভাগিনা দৌলতদিয়ার সোহাগ বেপারী ৫/৬টি মোটর সাইকেল নিয়ে মহড়া দেয়। রাতের বেলায় আমার ফার্মে আগুন দেওয়া হয়। এটা সাইদের ইন্দনে তার ভাগিনা ঘটাতে পারে।

শাহেদা বেগমের ছেলে সোহেল ব্যাপারী জানান, আমরা সাইদ ও তার ভাগিনাকে সন্দেহ করে থানায় মামলা করেছি।

ঘটনাস্থল থেকে আছমা বেগম, রবিন সরদার, এমদাদুল শেখ, ফরহাদ শেক, সোহেল ব্যাপারী সহ একাধিক এলাকাবাসী জানান, ইয়াকুবের সোনালী মুরগির খামারে কেউ না কেউ অগ্নিপাত ঘটিয়েছ। তবে কারা আগুন দিয়েছে এটা পরিস্কার নয়। কারণ তাদের দুই পক্ষের গোলমালের সুযোগে অন্য কেউ আগুন দিতে পারে।

এ ব্যাপারে সাইদ ও তার পিতা আলীমদ্দিন বেপারী বলেন, আমাদের সাথে ইয়াকুবের জমি-জমা নিয়ে বিরোধ রয়েছে। তাই বলে তার ফার্মে আগুন দিয়ে এত বড় সর্বনাশ করা সম্ভব নয়।

এটা আশপাশ এলাকার কেউ চক্রান্ত করে আমাদের গোলমাল বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য এটা ঘাটাতে পারে।