ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
রামকান্তুপুর ইউয়িনের মোহনশাহ’র বটতলার গোল চত্বর এর উদ্বোধন রাজবাড়ীতে মাদকদ্রব্যর অপব্যবহার ও পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস ও আলোচনা সভা রাজবাড়ীতে ডিবি পুলিশের অভিযানে মাদক ব্যবসায়ী মোজাম্মেল আটক রাজবাড়ী শহর রক্ষা প্রকল্প (ফেইজ-২) বাস্তবায়ন বিষয়ক সাধারণ সমন্বয় সভা সন্ধ্যার মধ্যে বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান করতে হবে-প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী রামকান্তপুর ইউনিয়ন ও পৌর নবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সোহেল রানা। ঈদুল ফিতর’ উপলক্ষে চন্দনী ইউনিয়বাসীর সুস্বাস্থ্য, সুখ-সমৃদ্ধি ও অনাবিল আনন্দ কামনা করে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন-শাহিনুর পৌরবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুবলীগ নেতা মীর সজল জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকল সম্প্রদায়ের মানুষকেঈদের শুভেচ্ছা কাজী ইরাদত আলীর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে ছিন্নমূল মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ

যশোরে আরও তিন জঙ্গির আত্মসমর্পণ, এটি রেকর্ড: ডিআইজি খুলনা

রাজবাড়ী টুডে ডট কম:যশোরে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরীরের তিন সদস্য আত্মসমর্পণ করেছেন।

সোমবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তারা আত্মসমর্পণ করেন।

এরা হলেন- যশোর শহরের পুলিশ লাইন কদমতলা এলাকার আবদুল আজিজের তিন সন্তান তানজীব ওরফে আশরাফ, মাছুমা ও তানজীর আহমেদ।

একই পরিবারের এই তিন সদস্যের আত্মসমর্পনের ফলে যশোরে আত্মসমর্পণকারী জঙ্গি সদস্যের সংখ্যা দাঁড়ালো সাতজন। এরা সকলেই হিযবুত তাহরীরের সক্রিয় সদস্য।

গত ৬ সেপ্টেম্বর যশোর পুলিশের প্রকাশিত ১১ জঙ্গির তালিকায় একই পরিবারের ছয় সদস্যের নাম ছিল। তাদের মধ্যে এই তিনজন আত্মসমর্পণ করলো।

সোমবার দুপুর দেড়টায় যশোর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি মনির-উজ-জামান বলেন, যশোরের মতো আর কোথাও এত জঙ্গি আত্মসমর্পণ করেনি। এ পর্যন্ত সাতজন জঙ্গি পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করলো। অন্য জায়গায় জঙ্গিরা বন্দুযুদ্ধে নিহত হয়েছে। যশোরে পুলিশের প্রচেষ্টায় জঙ্গিদের আত্মসমর্পণ করানো সম্ভব হয়েছে।

গত ২১ আগস্ট পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মসমর্পণ করেন, ফখরুল আলম তুষার নামের হিযবুত তাহরীরের এক সদস্য। তুষার যশোর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের শিক্ষার্থী। তিনি যশোর শহরের আরবপুর এলাকার আবদুর রাজ্জাকের ছেলে।

এর আগে ১১ আগস্ট যশোরে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরীরের তিন সদস্য যশোর শহরতলীর খোলাডাঙ্গা কদমতলা এলাকার মৃত শফিয়ার রহমানের ছেলে সাদ্দাম ইয়াসির সজল। তিনি হিযবুত তাহরীরের মোশরেফ সদস্য। অপর দুইজন সংগঠনের সাবাব সদস্য। তারা হলেন- যশোর শহরতলীর ধর্মতলা মোড় এলাকার আবদুস সালামের ছেলে রায়হান আহমেদ ও যশোর শহরতলীর কদমতলা এলাকার একেএম শারাফত মিয়ার ছেলে মেহেদী হাসান পলাশ ।

সংবাদ সম্মেলনে খুলনা বিভাগের ডিআইজি এস এম মনির-উজ-জামান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আহ্বানে সাড়া দিয়ে জঙ্গিরা অনুতপ্ত হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে চায়। তারা আমাদের কাছে এসেছে। আমরা আত্মসমর্পণের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।

তিনি আরও বলেন, যারা আত্মসমর্পণ করেনি, তারা আত্মসমর্পণ না করলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Tag :

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

লেখক তথ্য সম্পর্কে

Meraj Gazi

জনপ্রিয় পোস্ট

রামকান্তুপুর ইউয়িনের মোহনশাহ’র বটতলার গোল চত্বর এর উদ্বোধন

যশোরে আরও তিন জঙ্গির আত্মসমর্পণ, এটি রেকর্ড: ডিআইজি খুলনা

আপডেটের সময় : ০৭:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ অক্টোবর ২০১৬

রাজবাড়ী টুডে ডট কম:যশোরে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরীরের তিন সদস্য আত্মসমর্পণ করেছেন।

সোমবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তারা আত্মসমর্পণ করেন।

এরা হলেন- যশোর শহরের পুলিশ লাইন কদমতলা এলাকার আবদুল আজিজের তিন সন্তান তানজীব ওরফে আশরাফ, মাছুমা ও তানজীর আহমেদ।

একই পরিবারের এই তিন সদস্যের আত্মসমর্পনের ফলে যশোরে আত্মসমর্পণকারী জঙ্গি সদস্যের সংখ্যা দাঁড়ালো সাতজন। এরা সকলেই হিযবুত তাহরীরের সক্রিয় সদস্য।

গত ৬ সেপ্টেম্বর যশোর পুলিশের প্রকাশিত ১১ জঙ্গির তালিকায় একই পরিবারের ছয় সদস্যের নাম ছিল। তাদের মধ্যে এই তিনজন আত্মসমর্পণ করলো।

সোমবার দুপুর দেড়টায় যশোর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি মনির-উজ-জামান বলেন, যশোরের মতো আর কোথাও এত জঙ্গি আত্মসমর্পণ করেনি। এ পর্যন্ত সাতজন জঙ্গি পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করলো। অন্য জায়গায় জঙ্গিরা বন্দুযুদ্ধে নিহত হয়েছে। যশোরে পুলিশের প্রচেষ্টায় জঙ্গিদের আত্মসমর্পণ করানো সম্ভব হয়েছে।

গত ২১ আগস্ট পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মসমর্পণ করেন, ফখরুল আলম তুষার নামের হিযবুত তাহরীরের এক সদস্য। তুষার যশোর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের শিক্ষার্থী। তিনি যশোর শহরের আরবপুর এলাকার আবদুর রাজ্জাকের ছেলে।

এর আগে ১১ আগস্ট যশোরে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরীরের তিন সদস্য যশোর শহরতলীর খোলাডাঙ্গা কদমতলা এলাকার মৃত শফিয়ার রহমানের ছেলে সাদ্দাম ইয়াসির সজল। তিনি হিযবুত তাহরীরের মোশরেফ সদস্য। অপর দুইজন সংগঠনের সাবাব সদস্য। তারা হলেন- যশোর শহরতলীর ধর্মতলা মোড় এলাকার আবদুস সালামের ছেলে রায়হান আহমেদ ও যশোর শহরতলীর কদমতলা এলাকার একেএম শারাফত মিয়ার ছেলে মেহেদী হাসান পলাশ ।

সংবাদ সম্মেলনে খুলনা বিভাগের ডিআইজি এস এম মনির-উজ-জামান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আহ্বানে সাড়া দিয়ে জঙ্গিরা অনুতপ্ত হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে চায়। তারা আমাদের কাছে এসেছে। আমরা আত্মসমর্পণের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।

তিনি আরও বলেন, যারা আত্মসমর্পণ করেনি, তারা আত্মসমর্পণ না করলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।