ঢাকা , শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
রামকান্তুপুর ইউয়িনের মোহনশাহ’র বটতলার গোল চত্বর এর উদ্বোধন রাজবাড়ীতে মাদকদ্রব্যর অপব্যবহার ও পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস ও আলোচনা সভা রাজবাড়ীতে ডিবি পুলিশের অভিযানে মাদক ব্যবসায়ী মোজাম্মেল আটক রাজবাড়ী শহর রক্ষা প্রকল্প (ফেইজ-২) বাস্তবায়ন বিষয়ক সাধারণ সমন্বয় সভা সন্ধ্যার মধ্যে বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান করতে হবে-প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী রামকান্তপুর ইউনিয়ন ও পৌর নবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সোহেল রানা। ঈদুল ফিতর’ উপলক্ষে চন্দনী ইউনিয়বাসীর সুস্বাস্থ্য, সুখ-সমৃদ্ধি ও অনাবিল আনন্দ কামনা করে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন-শাহিনুর পৌরবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুবলীগ নেতা মীর সজল জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকল সম্প্রদায়ের মানুষকেঈদের শুভেচ্ছা কাজী ইরাদত আলীর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে ছিন্নমূল মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ

সব দলের অংশগ্রহণে সার্চ কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠনের দাবি বিএনপির

  • রিপোর্টারের নাম
  • আপডেটের সময় : ০৬:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৬
  • ২২৪ ভিউয়ের সময়

স্টাফ রিপোর্টার,রাজবাড়ী টুডে ডট কম: সব রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণে সার্চ কমিটির মাধ্যমে স্বাধীন নির্বাচন কমিশন গঠনের দাবি জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সরকারকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন গঠনের নামে সার্চ কমিটি করুন আর যাই করুন, জনমতের বাইরে গিয়ে কোনো কমিটি জনগণ মেনে নেবে না।’

মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নবম কারামুক্তি দিবসে ঢাকা মহানগর বিএনপির আলোচনায় ফখরুল এসব কথা বলেন।

সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের গ্রেপ্তার হওয়ার পর ২০০৮ সালের ১১ সেপ্টেম্বর মুক্তি পেয়েছিলেন খালেদা জিয়া। ঈদুল আজহার কারণে ওই দিনের কর্মসূচি বাতিল করে আজ পালন করা হয়। মহানগর বিএনপি আয়োজিত আলোচনায় বিভিন্ন ইউনিট থেকে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা মিছিলসহ অনুষ্ঠানস্থলে আসেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার ও নির্বাচন কমিশন ছাড়া বিএনপি নির্বাচন চায় না। গৃহপালিত নির্বাচন কমিশনের অধীনে আবারো নির্বাচন হলে জনগণ মেনে নেবে না।’

নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনে থাকা বিএনপি-জামায়াত জোট ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন বর্জন করে। আগামী জাতীয় নির্বাচনও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে দিতে হবে বলে জানাচ্ছে দলটি। তবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নেতারা বলছেন, আগামী নির্বাচনও সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচিত সরকারের অধীনে হবে এবং সে নির্বাচনে বিএনপি অবশ্যই অংশ নেবে।

নির্দলীয় সরকারের পাশাপাশি শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন করার দাবি আছে বিএনপির। বর্তমান কমিশন নিয়ে দলটির জোরালো আপত্তি আছে। এই কমিশন সরকারের প্রভাবদুষ্ট বলে অভিযোগ করছে দলটি।

রকিবউদ্দীন আহমেদের নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে সহসা। এরই মধ্যে নতুন কমিশন গঠনে সার্চ কমিটি করার জন্য ফাইল চলাচল শুরু হয়েছে বলে খবর বের হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘গৃহপালিত নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচনও মেনে নেয়া হবে না।’

Tag :

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

লেখক তথ্য সম্পর্কে

Meraj Gazi

জনপ্রিয় পোস্ট

রামকান্তুপুর ইউয়িনের মোহনশাহ’র বটতলার গোল চত্বর এর উদ্বোধন

সব দলের অংশগ্রহণে সার্চ কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠনের দাবি বিএনপির

আপডেটের সময় : ০৬:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টার,রাজবাড়ী টুডে ডট কম: সব রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণে সার্চ কমিটির মাধ্যমে স্বাধীন নির্বাচন কমিশন গঠনের দাবি জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সরকারকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন গঠনের নামে সার্চ কমিটি করুন আর যাই করুন, জনমতের বাইরে গিয়ে কোনো কমিটি জনগণ মেনে নেবে না।’

মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নবম কারামুক্তি দিবসে ঢাকা মহানগর বিএনপির আলোচনায় ফখরুল এসব কথা বলেন।

সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের গ্রেপ্তার হওয়ার পর ২০০৮ সালের ১১ সেপ্টেম্বর মুক্তি পেয়েছিলেন খালেদা জিয়া। ঈদুল আজহার কারণে ওই দিনের কর্মসূচি বাতিল করে আজ পালন করা হয়। মহানগর বিএনপি আয়োজিত আলোচনায় বিভিন্ন ইউনিট থেকে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা মিছিলসহ অনুষ্ঠানস্থলে আসেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার ও নির্বাচন কমিশন ছাড়া বিএনপি নির্বাচন চায় না। গৃহপালিত নির্বাচন কমিশনের অধীনে আবারো নির্বাচন হলে জনগণ মেনে নেবে না।’

নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনে থাকা বিএনপি-জামায়াত জোট ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন বর্জন করে। আগামী জাতীয় নির্বাচনও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে দিতে হবে বলে জানাচ্ছে দলটি। তবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নেতারা বলছেন, আগামী নির্বাচনও সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচিত সরকারের অধীনে হবে এবং সে নির্বাচনে বিএনপি অবশ্যই অংশ নেবে।

নির্দলীয় সরকারের পাশাপাশি শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন করার দাবি আছে বিএনপির। বর্তমান কমিশন নিয়ে দলটির জোরালো আপত্তি আছে। এই কমিশন সরকারের প্রভাবদুষ্ট বলে অভিযোগ করছে দলটি।

রকিবউদ্দীন আহমেদের নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে সহসা। এরই মধ্যে নতুন কমিশন গঠনে সার্চ কমিটি করার জন্য ফাইল চলাচল শুরু হয়েছে বলে খবর বের হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘গৃহপালিত নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচনও মেনে নেয়া হবে না।’