ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
রামকান্তুপুর ইউয়িনের মোহনশাহ’র বটতলার গোল চত্বর এর উদ্বোধন রাজবাড়ীতে মাদকদ্রব্যর অপব্যবহার ও পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস ও আলোচনা সভা রাজবাড়ীতে ডিবি পুলিশের অভিযানে মাদক ব্যবসায়ী মোজাম্মেল আটক রাজবাড়ী শহর রক্ষা প্রকল্প (ফেইজ-২) বাস্তবায়ন বিষয়ক সাধারণ সমন্বয় সভা সন্ধ্যার মধ্যে বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান করতে হবে-প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী রামকান্তপুর ইউনিয়ন ও পৌর নবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সোহেল রানা। ঈদুল ফিতর’ উপলক্ষে চন্দনী ইউনিয়বাসীর সুস্বাস্থ্য, সুখ-সমৃদ্ধি ও অনাবিল আনন্দ কামনা করে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন-শাহিনুর পৌরবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুবলীগ নেতা মীর সজল জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকল সম্প্রদায়ের মানুষকেঈদের শুভেচ্ছা কাজী ইরাদত আলীর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে ছিন্নমূল মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ

নদী ভাঙন ঠেকাতে দ্রুত ব‍্যবস্থা দাবি, রাজবাড়ীতে গণসমাবেশ

খন্দকার রবিউল ইসলাম: নদী ভাঙন থেকে রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁধ রক্ষার দাবিতে গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২রা মে বিকালে রাজবাড়ী সদর উপজেলার উড়াকান্দায় বেড়ীবাঁধ রক্ষা আন্দোলন বাস্তবায়ন কমিটির আয়োজনে কর্মসূচি পালন করা হয়।
কমিটির সভাপতি রুহুল আমীন গাজী বিপ্লবের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা, সাংবাদিক, ব্যবসায়ীসহ বিশিষ্টজনরা।

বরাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান সালাম বলেন, বারবার আন্দোলন করা হলেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। প্রতি বছর নদী ভাঙনে পথে বসছে শত শত পরিবার কিন্তু ভাঙন ঠেকাতে কার্যকর কোন পদক্ষেপ নেই। দ্রুত কাজ শুরু না হলে কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার কথাও জানান তিনি। এবার বর্ষাত ভাঙন শুরু হলে পুরো হুমকিতে পরবে বলেও মনে করেন তিনি।

সমাবেশে বাংলাভিশন টিভির সাংবাদিক মিরাজ হোসেন গাজী বলেন, ২০১৭ সালের আগস্টে একনেকে ৩৪২ কোটি টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। কিন্তু জনগুরুত্বপূর্ণ এই প্রকল্পের কাজ এতোদিনেও শুরু না হওয়ায় ক্ষোভ জানান তিনি। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে চুড়ান্ত অনুমোদনের পরও কেন কার্যাদেশ দেয়া হচ্ছে না সেই প্রশ্ন রাখেন মিরাজ হোসেন গাজী। তিনি বলেন, আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় এই প্রকল্পের কাজ আটকে আছে। দ্রুত এই কাজ শুরুর দাবি জানান তিনি।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বরাট ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান কাজী সামসুদ্দিন, বরাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন আহম্মেদ, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আসজাদ হোসেন আরজু ও শেখ আইয়ুব আলীসহ অন্যরা।

বক্তার বলেন, নদী ভাঙনে শত শত বসতবাড়ী বিলীন হয়ে মানুষ মানবেতন জীবনযাপন করলেও সরকার কোন পদক্ষেণ গ্রহণ করে নাই। এবারও রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁধ হুমকির মুখে। দ্রুত বাঁধ নির্মাণ করা না হলে এ বছর বাঁধ ভেঙ্গে রাজবাড়ী শহর পানির নীচে তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা স্থানীয়দের।

রাজবাড়ী শহর রক্ষা আন্দোলন বাস্তবায়ন কমিটির মূল আয়োজকরা অনলাইনে এটি সংগঠিত করেন। যাদের অধিকাংশই প্রবাসী বাংলাদেশী ।

Tag :

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

লেখক তথ্য সম্পর্কে

Meraj Gazi

জনপ্রিয় পোস্ট

রামকান্তুপুর ইউয়িনের মোহনশাহ’র বটতলার গোল চত্বর এর উদ্বোধন

নদী ভাঙন ঠেকাতে দ্রুত ব‍্যবস্থা দাবি, রাজবাড়ীতে গণসমাবেশ

আপডেটের সময় : ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ মে ২০১৮

খন্দকার রবিউল ইসলাম: নদী ভাঙন থেকে রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁধ রক্ষার দাবিতে গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২রা মে বিকালে রাজবাড়ী সদর উপজেলার উড়াকান্দায় বেড়ীবাঁধ রক্ষা আন্দোলন বাস্তবায়ন কমিটির আয়োজনে কর্মসূচি পালন করা হয়।
কমিটির সভাপতি রুহুল আমীন গাজী বিপ্লবের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা, সাংবাদিক, ব্যবসায়ীসহ বিশিষ্টজনরা।

বরাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান সালাম বলেন, বারবার আন্দোলন করা হলেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। প্রতি বছর নদী ভাঙনে পথে বসছে শত শত পরিবার কিন্তু ভাঙন ঠেকাতে কার্যকর কোন পদক্ষেপ নেই। দ্রুত কাজ শুরু না হলে কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার কথাও জানান তিনি। এবার বর্ষাত ভাঙন শুরু হলে পুরো হুমকিতে পরবে বলেও মনে করেন তিনি।

সমাবেশে বাংলাভিশন টিভির সাংবাদিক মিরাজ হোসেন গাজী বলেন, ২০১৭ সালের আগস্টে একনেকে ৩৪২ কোটি টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। কিন্তু জনগুরুত্বপূর্ণ এই প্রকল্পের কাজ এতোদিনেও শুরু না হওয়ায় ক্ষোভ জানান তিনি। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে চুড়ান্ত অনুমোদনের পরও কেন কার্যাদেশ দেয়া হচ্ছে না সেই প্রশ্ন রাখেন মিরাজ হোসেন গাজী। তিনি বলেন, আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় এই প্রকল্পের কাজ আটকে আছে। দ্রুত এই কাজ শুরুর দাবি জানান তিনি।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বরাট ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান কাজী সামসুদ্দিন, বরাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন আহম্মেদ, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আসজাদ হোসেন আরজু ও শেখ আইয়ুব আলীসহ অন্যরা।

বক্তার বলেন, নদী ভাঙনে শত শত বসতবাড়ী বিলীন হয়ে মানুষ মানবেতন জীবনযাপন করলেও সরকার কোন পদক্ষেণ গ্রহণ করে নাই। এবারও রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁধ হুমকির মুখে। দ্রুত বাঁধ নির্মাণ করা না হলে এ বছর বাঁধ ভেঙ্গে রাজবাড়ী শহর পানির নীচে তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা স্থানীয়দের।

রাজবাড়ী শহর রক্ষা আন্দোলন বাস্তবায়ন কমিটির মূল আয়োজকরা অনলাইনে এটি সংগঠিত করেন। যাদের অধিকাংশই প্রবাসী বাংলাদেশী ।